‘সব সহিংসতার বিরুদ্ধে আমরা’

‘সব সহিংসতার বিরুদ্ধে আমরা’

২৪ নিউজভিশন ডেস্ক> ‘পথে এবার নামো সাথী পথেই হবে আবার দেখা’, ‘চিৎকার কর মেয়ে দেখি কতদূর গলা যায়’, ‘আমি ভয় করবো না ভয় করবো না’, ‘বান এসেছে মরা গাঙে’- গতকাল এরকম অজস্র স্লোগানে মুখর ছিল রাজধানী ঢাকার ধানমণ্ডির নারীপক্ষের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের রাস্তাটি। দেশব্যাপী ক্রমবর্ধমান নারী ও শিশু ধর্ষণ ঘটনার প্রতিবাদে লাগাতার কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিকেল ৪টা থেকে এক ঘণ্টার অবস্থান কর্মসূচি পালন করে নারীপক্ষ। এতে অংশ নেয় দেশের সমমনা আরও ১৭৩টি সংগঠন।
 নারীর প্রতি সব ধরনের বৈষম্য বিলোপ সনদ (সিডও) দিবস ছিল মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর)। দিবসটি উপলক্ষে বাংলাদেশের সব জেলায় নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন ও সমাবেশ কর্মসূচি পালন করেছে বিভিন্ন সংগঠন। ‘যৌন আক্রমণ আর না, ধর্ষণ যৌন নির্যাতনসহ সব সহিংসতার বিরুদ্ধে আমরা’ এ প্রতিপাদ্যে এসব কর্মসূচিতে জাতিসংঘ ঘোষিত সিডও সনদের পূর্ণ অনুমোদন ও বাস্তবায়নের দাবি জানানো হয়।
ধানমণ্ডিতে এ সময় ধর্ষণ প্রতিরোধে প্রচারপত্র বিতরণ, স্লোগান, প্রতিবাদী গান এবং প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করেন নারীপক্ষের সদস্যরা।
কর্মসূচিতে লিফলেট পাঠ করেন নারীপক্ষের আন্দোলন সম্পাদক আফসানা চৌধুরী এবং সদস্য নাজমুন নাহার। তারা বলেন, নারীর ওপর সহিংসতা দমনে রাষ্ট্র এতটাই ব্যর্থ যে সহিংসতা এখন মহামারি আকার ধারণ করেছে। শিশু থেকে বৃদ্ধ সব বয়সের নারী যৌন সহিংসতা ও ধর্ষণের শিকার হচ্ছে; ছেলে শিশুরাও বলাৎকার থেকে রেহাই পাচ্ছে না। ঘরে-বাইরে সর্বত্র প্রতিনিয়ত ধর্ষণ, দলবদ্ধ ধর্ষণ, ধর্ষণের পর হত্যা, ধর্ষণচেষ্টা বা যৌন হয়রানি, উত্ত্যক্তকরণ, এসিড আক্রমণসহ নানাবিধ সহিংসতার শিকার হচ্ছে নারী-শিশু।
পরিবার, সমাজ, এমনকি রাষ্ট্র এবং আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার কাজে নিয়োজিত ব্যক্তির কাছেও নিরাপদ নয়।
বক্তারা বলেন, আইনের শাসনের অভাব, বিচারহীনতা, ক্ষমতাসীনদের অনৈতিক প্রভাব-প্রতিপত্তি, প্রশাসনের রল্প্রেব্দ রল্প্রেব্দ দুর্নীতির কারণে ঘটনার দ্রুত নিরপেক্ষ তদন্ত ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার দাবি এখন কেউ আর আমলেই নেন না। বক্তারা নারীর ওপর সংঘটিত প্রতিটি অপরাধের সুষ্ঠু বিচার করাসহ ঘটনার তদন্তের সঙ্গে সম্পৃক্ত পুলিশ, চিকিৎসক ও সংশ্নিষ্ট সবার জবাবদিহি নিশ্চিত করার দাবি জানান।
নারীপক্ষের কর্মসূচিতে অধিকার, মৌচাক মহিলা কল্যাণ সংস্থা, ব্রতি, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র, সচেতন সমাজ সেবা হিজড়া সংগঠন ও সমাজসেবা সংস্কৃতি কেন্দ্রও অংশ নেয়।
মঙ্গলবারের ওই অবস্থান কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে অভিযান সূচনা করে লাগাতার তৎপরতার মাধ্যমে আগামী ২৫ নভেম্বর ‘নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক প্রতিবাদ দিবসে’ আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন নেতারা।
নোয়াখালী :সকালে নোয়াখালী প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন হয়। পার্টিসিপেটরি রিসার্চ অ্যাকশন নেটওয়ার্ক (প্রান), এনআরডিএস, এফপিএবি, বন্ধন, গান্ধী আশ্রম ট্রাস্ট, প্রচেষ্টা নারী উন্নয়ন মেলা এর আয়োজন করে। এ সময় বক্তব্য দেন নোয়াখালী নারী অধিকার জোটের সভানেত্রী লায়লা পারভীন, পারিবারিক নির্যাতন প্রতিরোধ জোটের সভাপতি গোলাম আকবর ও নাগরিক অধিকার মোর্চার যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল আলম মাসুদ।
সাতক্ষীরা :অ্যাকশনএইড বাংলাদেশের সহযোগিতায় ও বেসরকারি উন্নয়ন সংগঠন স্বদেশ, শারি, সুনামসহ বিভিন্ন উন্নয়ন সংস্থার আয়োজনে সকাল ১০টায় সাতক্ষীরা প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।
স্বদেশের পরিচালক মাধব চন্দ্র দত্তের সঞ্চালনায় ‘আমরাই পারি’ সাতক্ষীরা জেলা জোটের চেয়ারম্যান আবদুল হামিদের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য দেন সুভাস সরকার, আবদুস সবুর বিশ্বাস, লুইস রানা গাইন, অপরেশ পাল, জ্যোৎস্না দত্ত, আবুল কালাম আজাদ, আনিসুর রহিম, আব্দুল আহাদ প্রমুখ।
ঝিনাইদহ :স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ওয়েলফেয়ার অ্যাফোর্টসের আয়োজনে সকালে শহরের শেরেবাংলা সড়কের পৌর গোরস্তানের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। এ সময় বক্তব্য দেন সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক শরিফা খাতুন, সাবেক নারী ভাইস চেয়ারম্যান তহুরা খাতুন, সাবেক উপাধ্যক্ষ এনএম শাহজালাল, মানবাধিকারকর্মী আমিনুর রহমান টুকু, সুরাইয়া পারভীন মলি, আশরাফুন্নাহার আশা, রুবল পারভেজ, নুরুন্নাহার কুসুম প্রমুখ।
ঠাকুরগাঁও :ইএসডিওর আয়োজনে শহরের চৌরাস্তায় মানববন্ধনে বিভিন্ন স্কুলের শতাধিক ছাত্রছাত্রীসহ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় বক্তব্য দেন ঠাকুরগাঁও প্রেস ক্লাবের সভাপতি মনসুর আলী, ইএসডিওর প্রকল্প কর্মকর্তা আতিয়া ইসলাম রিতুসহ অন্যরা। অন্যদিকে, মানবকল্যাণ পরিষদের আয়োজনে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন ও মাদারীপুর লিগ্যালএইড অ্যাসোসিয়েশনের সহযোগিতায় ঠাকুরগাঁও চৌরাস্তায় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় মাসুদ আহম্মেদ সুবর্ণ, তারিক হোসেন, নাজিরা আকতার স্বপ্না ও সাদেকুল ইসলাম বক্তব্য দেন।
নেত্রকোনা : শহরের মোক্তারপাড়ায় পৌরসভার সামনের সড়কে মানববন্ধনে শ্রম উন্নয়ন সংস্থা, জেলা নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটি, ইউনিয়ন নেটওয়ার্ক, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ, নারী প্রগতি সংঘ, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী, স্বাবলম্বী উন্নয়ন সমিতিসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এতে অংশ নেয়। একই দিন জেলার বারহাট্টা, পূর্বধলা, মোহনগঞ্জ ও দুর্গাপুরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।
গাইবান্ধা :গণ উন্নয়ন কেন্দ্রে ও মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের আয়োজনে শহরের ডিবি রোড আসাদুজ্জামান মার্কেটের সামনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মী এবং সাধারণ মানুষ এতে অংশ নেন। বক্তব্য দেন অধ্যক্ষ জহুরুল কাইয়ুম, সাইফুল আলম সাকা, প্রবীর চক্রবর্তী, রিক্তু প্রসাদ, মাহমুদা বেগম, মাজেদা খাতুন কল্পনা, সাজেদা পারভীন রুনু, বিপুল কুমার দাশ, প্রতিমা চক্রবর্তী, প্রিয়ন্তী, বিশ্বজিৎ বর্মণ প্রমুখ।
ফুলছড়ি (গাইবান্ধা) :উদাখালী নারী ফেডারেশনের আয়োজনে উপজেলা পরিষদের সামনের রাস্তায় মানববন্ধনে বক্তব্য দেন অ্যাকশনএইড ইন্টারন্যাশনাল প্রতিনিধি সেলসো মারকাট্রো, ইসরাত জাহান বিজু, মৌসুম ইসলাম, সোহেল রানা, লাকি বেগম, আছমা বেগম, জেনথী বেগম প্রমুখ।
কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) :ইন্ডিজিনাস পিপলস ডেভেলপমেন্ট সার্ভিসেসের (আইপিডিএস) আয়োজনে কুলাউড়া স্টেশন চৌমুহনী চত্বরে মানববন্ধন ও সমাবেশে আদিবাসী নারী উন্নয়ন ফোরামের সভানেত্রী মনিকা খংলা সভাপতিত্ব করেন।
স্বরূপকাঠি (পিরোজপুর) : মহিলা পরিষদ কাউখালী শাখার উদ্যোগে বিকেলে শহরে র‌্যালির আয়োজন করা হয়। পরে সংগঠনের কার্যালয়ে আলোচনা সভা হয়। সুনন্দা সমাদ্দারের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য দেন কাউখালী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মৃদুল আহমেদ সুমন, অধ্যক্ষ অলক কর্মকার, জাহানারা হাবিব ও শাহীদা হক। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন শামীম আরা বেগম নূপুর।
রাজাপুর (ঝালকাঠি) : উপজেলা পরিষদের সামনের সড়কে মানববন্ধন কর্মসূচির যৌথভাবে আয়োজন করে এনজিও সাইডো, নারীপক্ষ ও তারুণ্যের কণ্ঠস্বর প্ল্যাটফর্ম।
কলাপাড়া (পটুয়াখালী) :আভাসের আয়োজনে উপজেলা পরিষদের সামনে মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন ইউএনও মুনিবুর রহমান। একই সময়ে প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে এনএসএস।